গোপন ক্যামেরায় স্বামীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন স্ত্রী

স্বামীর পরকীয়া ধরার জন্য বাড়িতে গোপন ক্যামেরা লাগিয়ে জেলে যেতে হচ্ছে এক নারীকে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি অন্য এক নারীর ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ভঙ্গ করেছেন। ভারতের পুনে শহরে ঘটেছে এই ঘটনা।

ওই দম্পতির মধ্যে ২০১৬ সাল থেকে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা চলছে। স্ত্রীর সন্দেহ ছিল তার স্বামী অন্য কোনো নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন। তাই তিনি প্রমাণ জোগাড় করতে নিজেদের বাংলোতে গোপন ক্যামেরা বসান। সেই ক্যামেরাতে সত্যিই স্বামী ও স্বামীর বান্ধবীর ব্যক্তিগত মুহূর্তের কিছু দৃশ্য ধরা পড়ে।

গোটা ঘটনাটি সামনে এসেছে পুনের সাঙ্গভি থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর। সিনিয়র ইন্সপেক্টর (অপরাধ) অজয় ভোঁসলে জানিয়েছেন, বছর তেত্রিশের এক নারী থানায় তিন জনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ৩৫৪, ৫০৭, ১২০ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন।

ওই নারী যে তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন, তারা হলেন আইনজীবী অভিজিৎ সারওয়াতে, তার মক্কেল (যিনি সিসিটিভি ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন নিজেদের বাংলোয়) ও এক অজ্ঞাত ব্যক্তি।

সিনিয়র ইন্সপেক্টর অজয় ভোঁসলে জানিয়েছেন, অভিযোগকারী নারীর দাবি, ভিডিও ফুটেজ দেখিয়ে তাকে ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছিল। যিনি গোপন ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন সেই নারীর আইনজীবী অভিজিৎ সারওয়াতে তার কাছে টাকা চাইছিলেন। টাকা না দিলে সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই সব ভিডিও পোস্ট করে দেয়ার হুমকি দিচ্ছিলেন। যিনি গোপন ক্যামেরা লাগিয়েছিলেন বাংলোতে, ওই নারীও তার স্বামীকে ভিডিও দেখিয়ে বিবাহবিচ্ছেদের পাশাপাশি প্রচুর টাকা চাইছিলেন বলেও অভিযোগ উঠেছে।

থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর গ্রেপ্তার হন অভিযুক্ত নারী। পুলিশ জানিয়েছে, বাকি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধেও আইন মেনে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

About redianbd

Check Also

প্রবাসী স্বামী দেশে ফেরার খবরে বড়ি খেয়ে স্ত্রীর ভয়াবহ কান্ড

ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে গরু মোটা-তাজাকরণ বড়ি খেয়ে জনু আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু ঘটেছে। তার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.