দুলাভাইয়ের হাতে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর সর্বনাশ

বিয়ের ২০ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ি এসে নাবালিকা শ্যালিকাকে ধ’র্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে দুলাভাইয়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুলাভাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সম্প্রতি ভারতের চেন্নাইয়ের ইরুকুভাই এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শ্বশুরবাড়িতে এসেছিল অভিযুক্ত অজিত কুমার। তখনই ১৪ বছরের নাবালিকা শ্যালিকার সঙ্গে ভাব হয় অজিতের। প্রায় রোজই তাকে চকলেট-সহ নানা লোভনীয় জিনিস খাওয়াতেন অজিত। ওই এলাকায় মোবাইলের একটি ছোট দোকানও চালান অজিত।

এদিকে হঠাৎ স্কুল থেকে ফেরার পথে নিখোঁজ হয়ে যায় অজিতের শ্যালিকা ওই নাবালিকা। পুলিশের কাছে নিখোঁজ ডায়রি করা হয় পরিবারের পক্ষ থেকে। ৪ দিন ধরে খোঁজাখুঁজির পর অবশেষে অজিতের মোবাইলের দোকান থেকে উদ্ধার করা হয় শ্যালিকাকে।

জানা যায়, স্কুল থেকে ওই নাবালিকাকে তুলে এনে নিজের দোকানে বন্দী করে রেখেছিলেন অজিত। ৪ দিন ধরে লাগাতার ধ’র্ষণ করা হয় ওই নাবালিকাকে। এরপরেই গ্রেপ্তার করা হয় অজিতকে।

একেমন ভালবাসা, লকেটে শুক্রাণু নিয়ে ঘুরছে তরুনী !

ভালবাসা বা প্রেমে পড়লে মানুষের বুদ্ধি লোপ পায় তা অনেক ঘটনা দেখেই আমরা বুঝতে পেরেছি। আবার অনেকে বলে প্রেমে পড়লে অন্ধ হয়ে যায় কিংবা প্রেমে পড়েলে বোকা হয়ে যায়।

তেমনই এক অবাক করা কান্ড ঘটিয়ে নেটে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এক প্রেমিকা। আমরা জানি অনেকে প্রেমিক বা প্রেমিকার ছবি মনে প্রাণে ধারন করার জন্য লকেটের মধ্যে ছোট করে তুলে রাখে। লকেটে শোভা পায় পাশাপাশি দু’জনের ছবি। কিন্তু তাই বলে বীর্য ?সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনা ঘটিয়েছেন মার্কিন মুলুকের এক যুবতী। শুধু কি তাই? সেই ছবি তিনি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল সাইটেও। সেই ছবি এখন নেটিজেনদের নতুন আলোচনার বিষয়। যদিও টুইটার ইতিমধ্যেই ছবিটিকে ‘সেন্সেটিভ কন্টেন্ট’-এর আওতাভুক্ত করেছে। ফলে সহজে দেখা যাচ্ছে না ছবিটি।

বীর্যভরা লকেটের ছবিটি ওই যুবতী পোস্ট করেছিলেন গত মাসের গোড়ার দিকে। @cuntyspice নামে টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট করা হয়েছিল সেটি। টেক্সাসের ওই যুবতীর মতে, প্রেমিককে তিনি প্রচণ্ড ভালবাসেন। তাই তিনি সব সময়ই প্রেমিকের শরীরে একটি অংশ নিজের কাছে রাখতে চাইতেন। সেই থেকেই এই ভাবনা তাঁর মাথায় আসে। প্রেমিকের বীর্য একটি পাত্রে ভরে সেটি গলায় পরতে শুরু করেন তিনি। ভালবাসার চিহ্ন স্বরূপ সেই নেকলেসের ছবিও তিনি পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও।

তারপর থেকে নেটদুনিয়ার চর্চার অন্যতম বিষয় হয়ে দাঁড়ায় এই স্পার্মের নেকলেস। অনেকে টেক্সাসের ওই যুবতির কাণ্ডকারখানার তীব্র নিন্দা করেছেন। বলেছেন, প্রেমিককে যদি অতটাই ভালবাসেন তিনি, তাহলে তাঁর ছবি দেওয়া লকেট পরতে পারতেন। নিজের পার্সেও রাখতে পারতেন প্রেমিকের ছবি।

কিন্তু এ আবার কী কাণ্ড! শুক্রাণু দিয়ে তিনি কিনা লকেট তৈরি করলেন! তার ছবি আবার পোস্টও করলেন টুইটারে! গোটা ব্যাপারটাই অত্যন্ত ঘৃণ্য বলে মন্তব্য করেন তাঁরা। অনেকে আবার যুবতীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। বলেছেন, এটি নিতান্তই ওই যুবতীর ব্যক্তিগত ব্যাপার। এর মধ্যে নাক না গলানোই ভাল। তবে সবথেকে বেশি চলছে হাসিঠাট্টা। নেটিজেনরা বিষয়টির মধ্যে হাসির খোরাক পেয়েছেন। যদিও এসব নিয়ে মোটেও মাথা ঘামাতে রাজি নন ওই যুবতী। তিনি ওই শুক্রাণুবন্দি নেকলেস নিয়ে বেজায় খুশি।

About redianbd

Check Also

প্রবাসীর স্ত্রী অ’ন্তঃ’সত্ত্বা, ফেঁসে গেলেন চাচা শ্বশুর। দেখুন বিস্তারিত

ফেনীর সোনাগাজীতে চাচা শ্বশুরের ধ’র্ষণে প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.