আমার থেকে শিখে নে কীভাবে শিবির পে’টাতে হয়, বলেই আবরারকে বে’ধড়ক পে’টান অনিক

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালর (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পি’টিয়ে হ’ত্যা করা হয়। হ’ত্যার ঘটনায় অনিক সরকারকে গ্রে’ফতার করা হয়। তবে গ্রে’ফতারের আগে তার বাব-মা কিছুই জানতেন না।

এমন ব’র্বরোচিত হ’ত্যাকাণ্ডে ছেলের জড়িত থাকার বিষয়টি জানার পর হ’তবাক হয়েছেন তারা। নিরপরাধ মেধাবী আবরার ফাহাদকে সবচেয়ে বেশি পি’টিয়েছে তাদের ছেলে অনিকই।

সেদিন বুয়েটের শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে প্রথম দফা পে’টানোর পর অনিক সরকারই বলেন, শিবির কীভাবে পে’টাতে হয় তা আমার থেকে শিখে নে। এ কথা বলেই, স্ট্যাম্প হাতে তুলে নিয়ে ফাহাদকে বে’ধড়ক পে’টায় অনিক। অনিক সে সময় ম’দ্যপ ছিলেন। তার প্রমাণও মিলেছে।

গণমাধ্যমে এ খবর প্রকাশের পর একেবারেই মু’ষড়ে পড়েন অনিকের বাবা আনোয়ার হোসেন।

সাক্ষাৎকারে আনোয়ার হোসেন বলেছেন, ‘আমরা জানি অনিক সেখানে পড়ালেখা করছে। যখন জানতে পারি এক ছাত্রকে খু’নের সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে তাকে আ’টক করেছে পুলিশ, তখন অবাক হয়ে যাই। ভাবতে পারছি নানা আমার ছেলে কাউকে খু’ন করতে পারে।’

‘অনিক অ’পরাধী হলে প্রচলিত আইনে তার বিচার হোক। এক ফুলে ১০টা কুঁড়ি হলে ১০টাই ফল হয় না।’ বুকভরা ক’ষ্ট নিয়ে কথাগুলো বলেন অনিকের বাবা।

About redianbd

Check Also

প্রবাসীর স্ত্রী অ’ন্তঃ’সত্ত্বা, ফেঁসে গেলেন চাচা শ্বশুর। দেখুন বিস্তারিত

ফেনীর সোনাগাজীতে চাচা শ্বশুরের ধ’র্ষণে প্রবাসীর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.