জেনে নিন কমলার খোসার উপকারিতা

আমরা কি জানি আমাদের আশেপাশেই কত উপকারী প্রাকৃতিক দ্রব্য ছড়িয়ে আছে? আমরা বেশিরভাগ সময় এগুলোকে অবজ্ঞা করি। তেমনি একটি দ্রব্য হচ্ছে কমলার খোসা।

কমলা শুধু ফল হিসেবেই উপকারী নয়, এর খোসারও রয়েছে বহুবিধ ব্যবহার। আসুন দেখে নিই।

ত্বক কোমল ও উজ্জ্বল করতে গোসলের সময় কমলার খোসার ভেতরের অংশ ঘষে নিন ত্বকে। পিঁপড়া বা পোকার বাসায় রেখে দিন কমলার খোসার টুকরা। দূর হবে পোকামাকড়।

একটি কাচের বয়ামে বেশ কয়েক টুকরা কমলার খোসা নিন। সাদা ভিনেগার ভর্তি করে বয়াম রেখে দিন ফ্রিজে। দুই একদিন পর পর নেড়ে দেবেন মিশ্রণটি। কয়েক সপ্তাহ পর বের করে স্প্রে বোতলে ভরে নিন মিশ্রণটি। জানালা ও আয়নার গ্লাস পরিষ্কার করুন এর সাহায্যে।

জুতার দুর্গন্ধ দূর করতে একটি ছোট কাপড়ের ব্যাগে কমলার খোসার টুকরা নিয়ে রেখে দিন জুতার ভেতরে। কমলার খোসা শুকিয়ে গুঁড়া করে নিন। বাথরুম বা রান্নাঘরের কোণায় ছিটিয়ে নিন। চমৎকার সুগন্ধ আসবে।

গরম পানির গ্লাসে এক টুকরো লেবুই দিতে পারে আপনাকে নতুন জীবন!

বেইজিং সামরিক হাসপাতালের চীফ এক্সিকিউটিভ অধ্যাপক চেন হোরিন বলেন, ” গরম পানির গ্লাসে লেবুর টুকরা আপনার বাকি জীবনের জন্য আপনাকে বাচাতে পারে ।

প্রথমতঃ গরম লেবু ক্যান্সার কোষ কে মেরে ফেলতে পারে। একটা লেবু তিন টুকরা করে কেটে একটা কাপে রাখুন। তার পর গরম পানি ঢালুন। এটি (alkaline পানি) হয়ে যাবে। প্রতিদিন এটা পানে অবশ্যই সবার বিশেষ উপকারে আসবে।

হট লেবু থেকে এন্টি ক্যান্সার ড্রাগ বের (release) হয়। ক্যন্সার, টিউমারের উপর গরম লেবুর রসের একটি কার্যকরী প্রভাব আছে এবং এটা সব ধরনের ক্যান্সারের চিকিৎসার ক্ষেত্রে বলা বা দেখানো হয়েছে।

এই নির্যাসের চিকিৎসা (গরম লেবুর রস) শুধু মাত্র ম্যালিগন্যান্ট কোষ ধ্বংস হবে এবং সুস্হ কোষের উপর এর কোনো প্রভাব পরবে না। দ্বিতীয়তঃ লেবুর রস এসিড এবং মন কার্বক্সিলিক এসিড উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রন করতে পারে।

কারো নুন্যতম জীবন রক্ষা করার গ্যারান্টি এই লিখাটি। অন্তত যারা এই লিখাটি পাবেন তারা পড়বেন এবং বন্ধুদের সাস্হ সচেতনতার জন্য অবশ্য ই শেয়ার যদি করেন তবেই আমার কস্ট করে লিখা সার্থক হবে।

অধ্যাপক চেন হোরিন বলেছেন, আমি আমার কর্তব্য পালন করেছি, আশা করি আপনিও এটি ছড়িয়ে দিতে আমাকে সাহায্য করবেন। নোট ঃ গরম লেবুপানি বানানোর এই প্রকৃয়ায় কোনো প্লাস্টিকের পাত্র ব্যবহার করা যাবে না। কাঁচের গ্লাস অথবা কাপ ব্যবহার করবেন।

About redianbd

Check Also

আপনার ৫ মাস বয়সী ছোট্ট শিশুর যত্নের জন্য দরকারী কিছু পরামর্শ।

যতক্ষণ না আপনার বাচ্চা একজন প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে উঠছে, ততক্ষণ তার সমস্ত প্রয়োজনীয় যত্ন দরকার হবে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.