বিয়ের পরবর্তী দু’সপ্তাহ ভুলেও খাবেন না এই ৫টি খাবার!

বিয়ের পরবর্তী কয়েকটি দিন নবদম্পতির কেমন কাটছে, তার উপর অনেকটা নির্ভর করে তাদের ভবিষ্যত জীবনের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য। নববিবাহিত স্বামী-স্ত্রী এই সময়টাই স্বভাবতই একে অন্যের সঙ্গে কাটাতে চায় একান্ত প্রেমনিবিড় কিছু মুহূর্ত। কিন্তু সেই ভালবাসার মুহূর্তগুলো একেবারে নিষ্প্রভ হয়ে পড়তে খাদ্যাভ্যাসের কিছু ত্রুটির কারণে। নিউট্রিসেন্টারের পুষ্টিবিশেষজ্ঞ ইলাউজি বাসকিস জানাচ্ছেন, বিয়ের পরবর্তী কয়েকটা দিন যদি আনন্দে পরিপূর্ণ করে তুলতে হয়, তা হলে কয়েকটা বিশেষ খাবারকে এড়িয়ে চলাই বুদ্ধিমানের কাজ। বিয়ের পরবর্তী দু’সপ্তাহে ভুলেও খাবেন না এই ৫টি খাবার, এতে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে! কোন কোন খাবার? আসুন, জেনে নিই—

১. কফি: অধিকমাত্রায় কফি সেবনের ফলে পুরুষদের শরীরে কর্টিসল নামের হরমোন ক্ষরণের পরিমাণ বেড়ে যায়। কফিতে যে ক্যাফিন থাকে, মূলত তার ফলেই কর্টিসলের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। এর পরিণামে শরীর অতি দ্রুত ক্লান্ত হয়ে পড়ে। নববিবাহিত দম্পতিদের পক্ষে এই ক্লান্তি মোটেই সুখকর হবে না। ঘনিষ্ঠ মুহূর্তগুলো এর ফলে একেবারে নিরানন্দ হয়ে পড়তে পারে।

২. চিজ: খেতে যতই সুস্বাদু লাগুক, চিজে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট থাকে। এই ফ্যাট পুরুষ এবং নারী শরীরে ইস্ট্রোজেন, প্রোজেস্টেরন এবং টেস্টোস্টেরনের মতো ‘সেক্স হরমোন’ তৈরিতে বাধা সৃষ্টি করে। ফলে যৌনজীবন নিষ্প্রভ হয়ে পড়ে।

৩. পেপারমিন্ট: নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর করতে পেপারমিন্টের জুড়ি মেলা ভার। মুখের ভিতরে ঠান্ডা আমেজ আনার ক্ষেত্রেও পেপারমিন্ট অত্যন্ত জনপ্রিয়। কিন্তু যে কোনও মিন্টেই যে মেন্থল থাকে, তা মানবশরীরে কামেচ্ছাকে দমন করে। বিশেষত পুরুষশরীরে কামবসনাকে হ্রাস করার ক্ষেত্রে মিন্টের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। কাজেই বিয়ের পরবর্তী কয়েক দিন পেপারমিন্টকে এড়িয়ে চলাই ভাল।

৪. মাটন: খাসির মাংস যে অত্যন্ত উপাদেয় এবং পুষ্টিকর, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু বিশেষজ্ঞদের অভিমত হল, মাটন যেহেতু হজম করা কঠিন, সেহেতু এই মাংস খাওয়ার পরে শরীরে এক ধরনের ক্লান্তির ভাব আসার সম্ভাবনা প্রবল। ভালবাসার মুহূর্তগুলিতে সেই ক্লান্তি মোটেই কাম্য নয়।

৫. বিনস: বিনসও অত্যন্ত পুষ্টিকর খাবার, কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিনস খাওয়ার পরে পেটে গ্যাস উৎপন্ন হয়। তা শরীর ও মনকে অবসন্ন করে তোলে। ফলে বেরঙিন হয়ে যায় নবদম্পতির ঘনিষ্ঠ মুহূর্তগুলোও। –এবেলা

About redianbd

Check Also

আপনার ৫ মাস বয়সী ছোট্ট শিশুর যত্নের জন্য দরকারী কিছু পরামর্শ।

যতক্ষণ না আপনার বাচ্চা একজন প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে উঠছে, ততক্ষণ তার সমস্ত প্রয়োজনীয় যত্ন দরকার হবে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.