গমের জমিতে পাখিদের মৃত্যু মিছিল,তোলপাড় উত্তর দিনাজপুর

চাষের জমিতে পাখিদের মৃত্যু মিছিল। মানুষের সচেতনতার অভাবে শতাধিক পাখির প্রাণ গেল অজান্তে। শনিবার সকালে এমন দৃশ্যই চাক্ষুষ করল উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের ঘিরনিগাঁও মন্ডলবস্তির বাসিন্দারা। শতাধিক পাখির মৃতদেহ একসাথে দেখে স্তম্ভিত এলাকার বাসিন্দারা। গ্রামবাসীদের প্রাথমিক অনুমান জমিতে গমের বীজের সাথে ছড়ানো হয়েছিল বিষও । তা খেয়েই এক রাতে বিপুল পরিমাণ পাখির মৃত্যু হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের থেকে জানা গেছে, এদিন সকালে মন্ডলবস্তির এক গমের জমিতে শালিক, ফিঙেদের মৃত্যুমিছিল দেখতে পান তাঁরা। দিনকয়েক আগেই ওই জমিতে গমের বীজ ছড়ানো হয়েছিল। প্রত্যক্ষদর্শীদের ধারণা, বীজের সাথেই বিষ ছড়ানো হয় সেখানে। তা থেকেই এই মর্মান্তিক ঘটনার সূত্রপাত।

চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি আজাহার আলি বলেন, শুনেছি ঘিরনিগাঁও এলাকায় এক জমিতে প্রায় তিনশ পাখির মৃতদেহ পড়ে রয়েছে। এই ঘটনায় আমরা শোকাহত। পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে পাখিদের জীবন বাঁচানো আমাদের কর্তব্য। জমিতে ছড়িয়ে দেওয়া কীটনাশক খেয়েই হয়ত পাখিদের মৃত্যু হয়েছে বলে অনুমান।

এই বিষয়ে পিপল ফর অ্যানিমালসের জেলা সম্পাদক গৌতম তান্তিয়া বলেন, পশু-পাখিদের রক্ষা করতে মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। প্রকৃতির ভারসাম্য কোনওভাবেই নষ্ট করা যাবে না। আমরা এই খবর পাওয়ার পরেই বনদপ্তরের সাথে যোগাযোগ করি। মৃত পাখিদের উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করার জন্য বন বিভাগকে আর্জি জানাই। মৌখিক ভাবে অভিযোগও জানানো হয়েছে।

রায়গঞ্জ বিভাগীয় বন আধিকারিক সোমনাথ সরকার বলেন, পাখি মৃত্যুর খবর পাওয়া মাত্রই রেঞ্জ অফিসারকে এলাকায় গিয়ে ঘটনার তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে মৃত পাখিদের ময়নাতদন্তও করা হবে। এছাড়াও জমিতে যেন কৃষকরা কীটনাশক অথবা বিষের ব্যবহার না করে সেই নিয়ে সচেতনতামূলক প্রচারের আয়োজন করা হবে বন বিভাগের পক্ষ থেকে।

About redianbd

Check Also

স্বামীকে হ’ত্যার পর পুঁতে তার ওপর স্ত্রী’র রান্নার চুলা

পর’কী’য়া সন্দেহে আইনজীবী স্বামীকে হ’ত্যা করে রান্নাঘরে স্ল্যাবের নিচে স্বামীর লা’শ পুঁতে তার ওপরই স্ত্রী’ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.