অবশেষে তা”লাক নিয়ে মুখ খু`ললেন শাবনূরের স্বামী অনিক

ঢাকাই সিনেমা’র একসময়ের তুমুল জনপ্রিয় নায়িকা শাবনূরের সংসার ভে’ঙে গেলো। গেল মাসেই বি’চ্ছেদ হয়ে যায় শাবনূর ও অনিক মাহমুদ হৃদ’য়ের দাম্প’ত্যজী’বন। গত বছরের শেষ দিকে ঢাকায় এসে এই সি’দ্ধান্ত নেন শাবনূর। বি’চ্ছেদের কারণ হিসেবে শাবনূর জানান, বনিবনা না হওয়া’র কারণেই সংসারে বি’চ্ছেদ চেয়েছেন তিনি।

তবে বিষ’য়টি সম্প’র্কে জানতে শাবনূ’রের স্বামী অনীক মা’মুদের স’ঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তিনি কোনো ধর’নের নো’টিশ হাতে পাননি। অনী’কের দাবি, আজ সকালেই শাব’নূরের সঙ্গে তার ক’থা হয়েছে। কিন্তু ডি’ভোর্সের ব্যা’পারে তো কোনো কিছু বলেননি! উল্টো জানতে চেয়ে’ছেন কে বা কারা এই ধরনের খবর ছড়ি’য়েছে।

২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর ভালো’বেসে দুই পরিবা’রের সম্ম’তিতে বিয়ে করেন শাবনূর ও অনীক মা’হমুদ। বিয়ের পরের বছরই ২৯ ডিসেম্বর এই দম্প’তির ঘর আলো’ত করে আসে ছেলে’সন্তান। চলতি বছরের জানু’য়ারিতে তার সংসার ভা’ঙনের দিকে একধাপ এগিয়ে যায়।

বেশ কিছুদিন ধরে বি’নোদন অ’ঙ্গনে গু’ঞ্জন, শাবনূর-অনীকের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে। সে সময় অনীক বলেছিলেন, এমন কিছু হয়নি। তারা এক’স’ঙ্গেই আছেন, ভালো আছেন।

শাবনূরের পারি’বারিক সূত্র জানি’য়েছে, দুই পরিবার মিলে কয়েক দফা আলোচনা করে সংসার টিকি’য়ে রাখতে চেয়েছে। কিন্তু দুজ’নের মতের অমিল এতটাই চূ’ড়ান্ত রূপ ধারণ করে, তাই আ’লাদা হওয়া সি’দ্ধান্ত নি’তে হয়।

নোটিশের অনু’লিপি অনি’কের এলাকার আইন ও সা’লিশ কে’ন্দ্রের চেয়ারম্যান এবং কাজী অফিস বরাবরও পাঠানো হয়েছে। এই তালাক নো’টিশে সা’ক্ষী রয়েছেন মো. নুরুল ইস’লাম ও শামীম আ’হম্ম’দ নামে দুজন।

তবে ঘটনার সত্যতা স্বী’কার করেছেন তা’লাকের নো’টিশ এবং হল’ফনামা প্রস্তু’তকারী অ্যাড’ভো’কেট কাওসার আহ’মেদ। তিনি এক গণমা’ধ্যমে বলেন, ‘গত ২৬ জানুয়ারি অনি’কের সঙ্গে বিবা’হ বন্ধন ছিন্ন করে’ছেন শাবনূর। গত ৪ ফে’ব্রুয়ারি অ’নিকের উত্তরা এবং গাজী’পুরের বাসার ঠিকানায় সেই নো’টিশ পাঠানো হয়।

উত্তরার নোটি’শটি ফেরত এলেও গাজীপু’রের ঠিকানায় পাঠানো নোটিশ এখনো ফেরত আসেনি। নোটিশটি অ’নিক গ্রহণ না করলে এর মধ্যেই ফেরত আসত। তবে আ’ইনগতভাবে তাঁদের এই তালাক কা’র্যকর হবে ৯০ দিন পর।’

২০১১ সালের ৬ ডিসেম্বর অনি’কের সঙ্গে শাবনূরে’র আংটি বদল হলেও ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর বিয়ে করেন তারা। ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর তাদের কোল’জুড়ে আসে আইজান নিহান নামে এক পুত্র’সন্তান।

তালাক নো’টিশে শাবনূর বলেছেন, ‘আমা’র স্বা’মী অনিক মাহমুদ হৃদয় স’ন্তান এবং আমা’র যথায’থ যত্ন ও র’ক্ষ’ণাবেক্ষণ করেন না। সে মা’দকাসক্ত। অনেকবার ম’রা’তে ম’দ্য’প অবস্থায় বা’সায় এসে আমা’র ওপর শা’রী’রিক ও মা’ন’সিক নি’র্যা’তন চালিয়েছে। আমা’দের ছেলের জ’ন্মের পর থেকে সে আমা’র কাছ থেকে দূ’রে সরে থা’কছে এবং অন্য একটি মেয়ের সঙ্গে সম্প’র্ক গড়ে আ’লাদা বস’বাস করছে।

একজন মু’স’লিম স্ত্রী’’’র সঙ্গে তার স্বা’মী যে ব্যবহার করেন অনি’ক সেটা করছেন না, উল্টো নানাভাবে আমাকে নি’র্যাত’ন করে। এসব কারণে আমা’র জীবনে অশা’ন্তি নেমে এসেছে। চেষ্টা করেও এসব থেকে তাকে ফেরা’তে পারিনি। বরং আমা’র স’ন্তান এবং আমা’র ওপর নি’র্যা’তন আরো বাড়তে থাকে। উপ’রো’ক্ত কারণ’গুলো’র জন্য মনে হয়ে তার স’ঙ্গে আমা’র আর বস’বাস করা স’ম্ভব নয় এবং আমি কখনো সু’খী হতে পারব না।

তাই নিজের উজ্জ্ব’ল ভ’বিষ্যৎ এবং সুন্দর জীব’নের জন্য তার সঙ্গে সব সম্প’র্ক ছেদ করতে চাই। মু’সলিম আ’ইন এবং শ’রিয়ত মো’তাবেক আমি তাকে তালাক দিতে চাই। আজ থেকে সে আমা’র বৈ’ধ স্বামী নয়, আমিও তার বৈধ স্ত্রী’’ নই।’

About redianbd

Check Also

রাতে বিয়ে বিকেলেই হাসপাতালে ভর্তি ৭৫ বছর বয়সী সেই অভিনেতা

দীর্ঘ ২২ বছর একসঙ্গে থাকার পর বৃহস্পতিবার রেজিস্ট্রি বিয়ে করেন পশ্চিম বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.