বিপিএল লস প্রজেক্ট, আগামী বছর থাকবো কি-না চিন্তা করছি : নাফিসা

আজকের আলোচনা বৈঠকে বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের আনুষ্ঠানিক কথোপকথন যতটা উত্তাপ ছড়াবে বলে ভাবা হচ্ছিল, তা ছড়ায়নি। অধিকাংশ ফ্র্যাঞ্চাইজিরা ঘুরে ফিরে আইকন বা এ প্লাস ক্যাটাগরির ক্রিকেটারের কথাই বলেছেন বেশি।

তবে সবাইকে ছাপিয়ে লভ্যাংশ নিয়ে অনেক বেশি সিরিয়াস কুমিল্লা স্বত্বাধিকারী নাফিসা কামাল। অনেক কথার ভিড়ে নাফিসা কামাল বোঝানোর চেষ্টা করেন, আসলে বিপিএলে লভ্যাংশ বণ্টন জরুরি। বিশেষ করে গ্রাউন্ডসের আংশিক আর টিকিট বিক্রির স্বত্বটাও ফ্র্যাঞ্চাইজিদের দেয়ার দাবিতে সোচ্চার কুমিল্লা ফ্রাঞ্চাইজির মালিক।

তবে বিসিবি, এসিসি ও আইসিসির সাবেক প্রেসিডেন্ট এবং অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের কন্যা আজ বিসিবির এক তলার লাউঞ্জে লভ্যাংশ বণ্টন নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে কথা বলতে গিয়ে রীতিমতো বোমা ফাটিয়েছেন।

তার দাবি, বিপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিদের জন্য মোটেই লাভজনক নয়। রীতিমতো ‘লস প্রজেক্ট’। এরপর একটি মারাত্মক কথা বেরিয়ে এসেছে তার মুখ থেকে। তিনি আগামী বছর কুমিল্লা ভিক্টোরিন্সকে বিপিএলে রাখবেন কি না সে শঙ্কার কথাও জানিয়েছেন।

নাফিসা কামাল বলেন, ‘সাত বছর আমরা বিপিএলে খেলে যাচ্ছি। আমরা পুরনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। আমি মালিক হিসেবে সবচেয়ে পুরনো। সিলেটের সাথে ছিলাম। অথচ এখন পর্যন্ত ব্রেক ইভেনে আসতে পারিনি। কোন ফ্র্যাঞ্চাইজিই ব্রেক ইভেনে আসতে পারেনি। এটা আমাদের সবার জন্য লস প্রজেক্ট। আমি চিন্তা করছি, আগামী বছর বিপিএলে থাকব কি না। এই অবস্থায় শুধুই লাভবান হচ্ছে বিসিবি। অবশ্যই আমরা তার অংশ হতে চাইব। আমরা অনেক বড় একটি স্টেকহোল্ডার। এখানে পুরোপুরি ওয়ান সাইডেড টুর্নামেন্ট হচ্ছে। আমরা কিছুই পাচ্ছি না, শুধু দিয়েই যাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘রেভিনিউ শেয়ারিং মানে আমরা বলছি না সব টাকা আমাদের দিয়ে দিতে হবে। আমরা বলছি পারশিয়ালি গ্রাউন্ড রাইটস বা টিকিট রাইটস আমাদের অংশীদার করতে হবে। কীভাবে বিক্রি করব সেটা আমাদের দায়িত্ব।’

About redianbd

Check Also

একগাদা চমক নিয়ে হাজির হল বিপিএল

এবারের বিপিএলটা হবে একটু অন্যরকম। আগের মতো ফ্রাঞ্চাইজি থাকছে না। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.