ভারতের সঙ্গে সংঘাত হলে তা পরমাণু যুদ্ধে গড়াবে

কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের এখনই কিছু করা উচিত। কারণ ভারতের সঙ্গে পাকিস্তানের সংঘাত হলে তা পরমাণু যুদ্ধে গড়াবে।

আল জাজিরা টিভিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এসব কথা বলেন। খবর দ্য ডনের।

ইমরান খান বলেন, কাশ্মীর নিয়ে বেশি দিন আমরা চুপ থাকব না। তা ছাড়া আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় দ্রুত বিষয়টি সমাধান করতে না পারলে আমাদের কাছে যুদ্ধ বিকল্প কিছু থাকবে না।

ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশই পরমাণু ক্ষমতাধর। তাই পরমাণু যুদ্ধ বাধলে গোটা বিশ্বে এর খারাপ প্রভাব পড়বে।

তিনি বলেন, জাতিসংঘ থেকে শুরু করে চীন, রাশিয়া ও ইউরোপীয় দেশগুলোকে বছরের পর বছর ধরে পাকিস্তান কাশ্মীর সংকটের সমাধানের জন্য অনুরোধ করে আসছে।

কাশ্মীরের স্বাধীনতা কেড়ে নিয়ে ভারতে সেখানে স্বৈরশাসন চালাচ্ছে বলে পাক প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেন।

‘তাদের হাতে দুটি খাবাবের প্যাকেট ধরিয়ে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে’

আসামে সদ্য সমাপ্ত নাগরিক তালিকার বরাবরই বিরোধিতা করে আসছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। আসামের মতো পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করার অনুমতি দেবেন না বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন মমতা।

এদিকে পাল্টা বক্তব্যে পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসি চালু করার হুমকি দেয়া হয় বিজেপির পক্ষ থেকে। এরপর বিজেপির সরকারের সে হুমকির প্রতিবাদে রাজপথে নামেন মমতা ব্যানার্জি। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতার সিঁথি থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল করেন তিনি। তার সঙ্গে যোগ দেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা।

গতকাল শনিবার বিজেপির এই নেতা মমতাকে উদ্দেশ্য করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গেও এনআরসি প্রয়োগ করা হবে। তৃণমূল সভানেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি বাংলাদেশিদের ধরে রাখতে চান তবে তার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার চেষ্টা করা উচিত।’

এ সময় সুরেন্দ্র সিং আরও কটাক্ষ করেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যদি বাংলাদেশের জনগণের সমর্থন নিয়ে রাজনীতি করতে চান তবে তার বাংলাদেশেই চলে যাওয়া উচিত। তার কার্যকলাপ দেখে মনে হচ্ছে তিনি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হয়ে গেলেই ভালো হবে।’

এ সময় তিনি হুশিয়ারি দেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি প্রয়োগ করা হবে তা নিশ্চিত। চূড়ান্ত তালিকার পর পশ্চিমবঙ্গে যারা ভারতের নাগরিক হিসাবে যোগ্যতা অর্জন করবেন না তাদের সম্মানজনকভাবে ভারত ছাড়তে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মমতা শত বাঁধা দিলেও পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি কার্যকর করা হবে এবং সব বাংলাদেশির হাতে দুটি খাবাবের প্যাকেট ধরিয়ে তাদের দেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে।’ এ সময় হিন্দু মহাকাব্য রামায়ণের থেকে উদাহরণ টেনে আনেন সুরেন্দ্র সিং।

সূত্র: বিডি২৪রিপোর্র্ট।

About redianbd

Check Also

আবারও সেই মাছ, জাপান জু’ড়ে সু’নামির আত’ঙ্ক!

একটি বি’রল প্র’জাতির মাছ দে’খে জাপানের মানুষ আ’তঙ্কিত হয়ে প’ড়েছে। তারা মনে ক’রে ওই মাছ-ই …

Leave a Reply

Your email address will not be published.